আপনার আশে পাশের বিভিন্ন ঘটনা-দূর্ঘটনা, প্রকৃতি পরিবেশ ও সংস্কৃতি অনুষ্ঠান এর ছবি তুলে পাঠিয়ে দিন- [email protected]

২ জনকে পিটিয়ে আহত, বাড়ী-ঘর ভাঙচুর গোয়ালন্দে প্রকাশ্যে সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের মহড়া


গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি
পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গোয়ালন্দ উপজেলার দেবগ্রাম ইউনিয়নে বৃহস্পতিবার রাতে ২ যুবককে পিটিয়ে আহত করে প্রতিপক্ষ। এ সময় বেশ কয়েকটি বাড়ী-ঘর ভাঙচুর ও প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়া দেয় দুবর্ৃৃত্তরা। ঘটনার পর থেকে এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।
হামলায় আহতরা হচ্ছেন ইউনিয়নের ঝটু মিস্ত্রি পাড়ার মোহন মোল্লার ছেলে নুর ইসলাম (২৫) ও উত্তর চর পাচুরিয়া গ্রামের মজিবর শেখের ছেলে সাগর শেখ (১৮)। তাদেরকে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, প্রায় ৬ মাস আগে এলাকায় একটি ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে মারামারির ঘটনা ঘটে। সে সময় স্থানীয়ভাবে আপোষ মিমাংসা করা হলেও এক পক্ষের মধ্যে ক্ষোভ রয়ে যায়। এর জের ধরে বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে প্রতিপক্ষের খায়রুল ইসলাম, কাওছার, ফয়সালসহ ১৫-২০ জনের একটি দল ধারালো অস্ত্র ও লাঠি-সোঠা নিয়ে ঝটু মিস্ত্রি পাড়া এলাকায় অতর্কিত হামলা করে। হামলায় নুর ইসলাম ও সাগর গুরুতর আহত হয়। হামলাকারীরা এ সময় বেশ কয়েকটি বাড়ী-ঘর ভাঙচুর করে ও রামদা দিয়ে ঘরের বেড়া কোপায়। সন্ত্রাসীরা এ সময় দুই রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে বলে অনেকেই দাবী করেন। খবর পেয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে যায়। আহতদের পক্ষ থেকে থানায় একটি অভিযোগ দেয়া হয়েছে।
দেবগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতর আলী সরদার দাবী করেন, হামলাকারীরা চরমপন্থী সংগঠন সর্বহারা ও লাল পতাকা গ্রুপের সাথে সম্পৃক্ত রয়েছে। এলাকায় প্রভাব বিস্তারের জন্য প্রকাশ্যে অস্ত্রে মহড়া দিয়ে, দুই রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে, ২ জনকে পিটিয়ে জখম করে এবং বাড়ী-ঘর ভাঙচুর করে তারা তাদের ক্ষমতা দেখাতে চায়। ঘটনার পর থেকে এলাকাবাসী আতঙ্কের মধ্যে আছে।
এ বিষয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম ও অভিযোগ তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই ইকবাল দাবী করেন, তারা ঘটনার পর পর ঘটনাস্থলে ছুটে যান। কিন্তু গুলি বিস্ফোরণের কোন সত্যতা পাননি। তবে দুর্বৃত্তরা ২জনকে পিটিয়ে জখম ও বাড়ী-ঘরে হামলা করে। আমরা অপরাধীদের আটক করতে চেষ্টা চালাচ্ছি।

No comments: