Wednesday, October 24, 2018

বালিয়াকান্দিতে ওসির প্রচেষ্টায় জমির সত্ব বুঝে পেল চিকিৎসক


সনজিৎ কুমার দাস ঃ রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুরে থানার অফিসার ইনচার্জের প্রচেষ্টায় জমির সত্ব বুঝে পেয়েছে এক মেডিকেল অফিসার।
মেডিকেল অফিসার ডাঃ সুতনু রায় জানান, বহরপুর বাজারে পৈত্তিক বাড়ী । বাড়ীটিকে ঘিরে নজর পরে তার প্রতিবেশী  বহরপুর গ্রামের মনসের দেওয়ানের ছেলে বাদশা দেওয়ান ও বংকুর গ্রামের মঙ্গল মন্ডলের ছেলে মোয়াজ্জেম মন্ডলের। দফায় দফায় বাড়ীটি দখলের চেষ্টা করে প্রতিপক্ষরা। দীর্ঘদিন আইনি লড়াই শেষে ২১ অক্টোবর রাজবাড়ীর অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আলমগীর হুসাইন তার অনুকুলে রায় প্রদান করেন। ওই রায় ঘোষানার পর প্রতিপক্ষরা জমিতে অবৈধভাবে ঘর নির্মানের পরিকল্পনা গ্রহন করে। ২২ অক্টোবর ঘর নির্মান করতে গেলে  প্রতিপক্ষরা তাকে বাধা প্রদানসহ লাঞ্ছিত  করে । খবর পেয়ে পুলিশ বাদশা ও মোয়জ্জেমকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থানায় নিয়ে আসে এবং তাকে প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র আনতে বলে। রায়ের কপি নিয়ে বালিয়াকান্দি থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম আজমল হুদার নিকট শরনাপন্ন হয় । তিনি কাগজপত্র পর্যালোচনা করে জমির সকল শর্ত তার রয়েছে বলে প্রতিয়মান হয়। তিনি সকলকে শান্তি  রক্ষার নির্দেশ দেন।
এ ব্যাপারে বালিয়াকান্দি থানার অফিসার ইনচার্জ এ কে এম আজমল হুদা জানান , আদালতের রায় সহ  জমির সকল শর্ত ডাক্তারের রয়েছে। এ কারণে যারা ঝামেলার সৃষ্টি করছিল তাদেরকেসহ গণ্যমান্য ব্যাক্তিদের ডেকে সুরহা করে দেওয়া হয়েছে।