আপনার আশে পাশের বিভিন্ন ঘটনা-দূর্ঘটনা, প্রকৃতি পরিবেশ ও সংস্কৃতি অনুষ্ঠান এর ছবি তুলে পাঠিয়ে দিন- [email protected]

রাজবাড়ী-২ আসনে আওয়ামীলীগের ৫ প্রার্থীর মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ


সোহেল রানা ঃ আগামী ২৩ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে রাজবাড়ী-২ ( পাংশা, বালিয়াকান্দি ও কালুখালী) উপজেলায় আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ৫ জন শুক্রবার মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন।
ধানমন্ডি আওয়ামীলীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন ৫জন প্রার্থী। স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ ( স্বাচিপ) সভাপতি অধ্যাপক ডা. এম ইকবাল আর্সলান, বাংলাদেশ কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় অর্থ ও পরিকল্পনা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য, দৈনিক জনতার আদালত পত্রিকার সম্পাদক নুরে আলম সিদ্দিকী হক, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কৃষি ও সমবায় বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য সলিসিউটর মুহাম্মদ মেহেদী হাসান, ডেপুটি এটনী জেনারেল ফরহাদ আহম্মদ, পাংশা উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক ফরিদ হাসান অদুদ।
স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক ডা. এম ইকবাল আর্সলানের ব্যাপক জনসমর্থন আছে। দীর্ঘ ৩৫ বছর ধরে চিকিৎসকদের সংগঠনের সঙ্গে সক্রিয়ভাবে জড়িত রয়েছেন তিনি।  এর আগে তিনি বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) মহাসচিব ছিলেন। তাঁর বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ নেই। তার বাবা প্রয়াত ডা. এ কে এম আসজাদও রাজবাড়ী-২ আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন। এলাকায় স্কুল-কলেজ, মাদরাসা ও মসজিদ প্রতিষ্ঠার জন্য তাঁর বাবা চার একর জমি দিয়ে গেছেন। তিনি নিজেও নিয়মিত এলাকায় এসে মেডিক্যাল ক্যাম্পসহ নানা জনকল্যাণমূলক কাজ করেন। এলাকার মানুষের অনেক ভালোবাসা তিনি ও তাঁর পরিবার পেয়েছে। এখন তাঁর দেওয়ার পালা। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা চাইলে আগামী নির্বাচনে তিনি প্রার্থী হবেন। তিনি রাজবাড়ী-২ আসনটি দলের প্রধানকে উপহার দিতে পারবেন। পাশাপাশি এলাকার বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের সাথে নিবিড় যোগাযোগ রক্ষা করছেন।
কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নুরে আলম সিদ্দিকী হক গণমানুষের সঙ্গে আছেন। আগামী সংসদ নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনা তরুণ নেতৃত্বকে এগিয়ে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। সে অনুযায়ী যদি তাঁকে মনোনয়ন দেওয়া হয়, তাহলে তিনি বিজয়ী হওয়ার ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী। সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের সাথে নিবিড় যোগাযোগ করাসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগদান, বঞ্চিত নেতাকর্মীদের পাশে থেকে অনুপ্রেরনা দিয়ে যাচ্ছেন। বিভিন্ন সভা-সমাবেশ করে নিজের অবস্থান শক্ত তৈরী করছেন।
লন্ডনে আইন পেশায় নিয়োজিত সলিসিউটর মুহাম্মদ মেহেদী হাসান দেশে থাকার সময় বঙ্গবন্ধু আইন ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। লন্ডনে ছিলেন বঙ্গবন্ধু ব্যারিস্টার কাউন্সিলের সাংগঠনিক সম্পাদক। বর্তমানে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সদস্য। লন্ডনে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার সঙ্গে আলাপের পর তিনি দেশে নিজের এলাকায় কাজ করছেন। মাঝেমধ্যেই দেশে আসেন এবং বিভিন্ন সেবামূলক কাজ করেন। সাম্প্রতিক সময়ে তিনি এলাকায় গণসংযোগও করেছেন। যে কারণে তিনি এবার দলের কাছে মনোনয়ন চাইবেন। গণসংযোগ করছেন।
ফরহাদ আহম্মেদ। ডেপুটি এটনীজেনারেল, বাংলাদেশ, সভাপতি বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষনা পরিষদ, সুপ্রিমকোর্ট শাখা, সদস্য, কেন্দ্রীয় উপ-কমিটি, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ। তিনিও এলাকায় পোষ্টার সার্টিয়েছেন।
অধ্যাপক ফরিদ হাসান অদুদ। তিনি পাংশা উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক। রাজনীতিতে তিনি ও তার পরিবার বেশ সক্রিয় ও জনসমর্থিত।
রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার ১০টি, বালিয়াকান্দি উপজেলার ৭টি ও কালুখালী উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন নিয়ে রাজবাড়ী-২ সংসদীয় আসন। বর্তমানে আসনটি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দখলে। আগামী নির্বাচনে আসনটি ধরে রাখতে মরিয়া দলটি। জাতীয় সংসদের ২১০ নম্বর নির্বাচনী এলাকা পাংশা, বালিয়াকান্দি ও কালুখালী।


No comments: