আপনার আশে পাশের বিভিন্ন ঘটনা-দূর্ঘটনা, প্রকৃতি পরিবেশ ও সংস্কৃতি অনুষ্ঠান এর ছবি তুলে পাঠিয়ে দিন- [email protected]

কে মন্ত্রী, কে এমপি দেখা হবে না , কপাল পুড়ছে আওয়ামী লীগের ১০০ এমপির?

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে ৩০০ আসনেই জরিপ শেষ করেছে আওয়ামী লীগ। তবে, প্রার্থী মনোনয়ন চূড়ান্ত হয়নি একটিও। এক সপ্তাহের মধ্যে তৃণমূলের মতামত চেয়ে পাঠানো হবে চিঠি। জরিপ আর মাঠ পর্যায়ের মতামতের ভিত্তিতে দেয়া হবে নৌকার প্রার্থী। তবে, গত নির্বাচনে দলীয় প্রতীক পাওয়া প্রায় ১০০ জন এবার মনোনয়ন পাচ্ছেন না বলে জানিয়েছেন, আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারকরা।
শুক্রবার বিকেলে গণভবনে অনুষ্ঠিত হয় সংসদীয় দলের সাথে কেন্দ্রীয় কমিটির সবশেষ যৌথসভা। গঠন করা হয় ৩৩ সদস্যের কোর কমিটি ও বিভিন্ন বিষয়ের ১২টি উপ-কমিটি। প্রতিটি আসনেই একাধিক মনোনয়নপ্রত্যাশীর বিষয়টিও আলোচনা হয়েছে বৈঠকে। দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গেলে আজীবন বহিস্কারের ঘোষণাও দেয়া হয়েছে।
আওয়ামী লীগ নেতারা জানান, কোন্দল মেটাতে এবং নির্বাচনী কার্যক্রমের গতিশীলতা আনতে দ্রুতই গঠন করা হবে জেলা পর্যায়ের নির্বাচনী কমিটি। তারা আরো জানান, জরিপ ও তৃণমূলের মতামতেরই চূড়ান্ত হবে নৌকার প্রার্থী।
দলের সভাপতিমন্ডলির সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, কে মন্ত্রী, কে এমপি। কে দলের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক। এটা দেখা হবে না। আমরা জরিপ শুরু করেছি। জরিপে আন্তর্জাতিক সংস্থাকে নিয়োজিত করা হয়েছে। এছাড়া আমরা তথ্য নিচ্ছি। যার পক্ষে জেতার সম্ভাবনা বেশি তাকেই মনোনয়ন দেয়া হবে।
আরেকজন সভাপতিমন্ডলির সদস্য কর্ণেল (অব:) ফারুক খান বলেন, তৃণমূলের যারা আছে তাদের মতামত চাইবো। উপজেলা ও জেলা কমিটি থেকে তথ্য নেয়া হবে। জরিপ ও মতামতের উপর ভিত্তি করে আমাদের পার্লামেন্টারি বোর্ড বসবে। বোর্ড একজনকে মনোনয়ন দেবে।
এবার দলে অনুপ্রবেশে সহায়তা, দুর্নীতিবাজ ও জনপ্রিয়তা হারানোরা বাদ পড়বেন।
ড.আব্দুর রাজ্জাক বলেন, অনেক এলাকাতে প্রত্যাশিত উন্নয়ন হয় নাই। ওয়ার্ডের যে প্রেসিডেন্ট সেও চায় তার এলাকার রাস্তাটা পাকা হোক। যারা কর্মীদের থেকে, তৃণমুলের মানুষের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে তাদের কোনোভাবেই মনোনয়ন দেয়া হবে না।
ফারুক খান বলেন, দলের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনেক আগ থেকেই বলে আসছিলেন, আপনারা যারা এলাকায় জনপ্রিয়তা হারাচ্ছেন সেগুলো ঠিক করে নিন। যারা ঠিক করতে পেরেছে তারা ভালো করেছেন আর যারা পারেনি ৬০-১০০ জনের মতো হতে পারে তাদের আসনে নতুন মনোনয়ন দেয়া হবে।
তারওপর রাজনৈতিক পরিস্থিতির ওপর অনেক কিছু নির্ভর করছে বলে জানান, আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারকরা। জনপ্রিয়, অথচ মনোনয়ন পাবেন না, তাদেরকে পরবর্তীতে দলীয়ভাবে মূল্যায়নের কথাও জানান, নেতারা।

No comments: