Thursday, December 20, 2018

রাজবাড়ীতে খাদ্য অধিকার আইনের দাবি


রাজবাড়ী প্রতিনিধি,
রাজবাড়ীতে গতকাল বুধবার বিকেল সাড়ে তিনটায় রাজনৈতিক দলের নির্বাচনী ইশতেহার ও খাদ্য অধিকার আইনের দাবি প্রসঙ্গে প্রার্থীদের সাথে নাগরিকদের সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। খাদ্য অধিকার বাংলাদেশ রাজবাড়ী জেলা কমিটির উদ্যোগে শহরের সজ্জনকান্দার এক নম্বর বেড়াডাঙ্গা এলাকায় রেডক্রিসেন্ট প্লাজায় এই সংলাপের আয়োজন করা হয়।
এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের রাজবাড়ী জেলা কমিটির সভাপতি ও স্বেচ্ছাসেবী বহুমূখী উন্নয়ন মহিলা সমিতির (এসবিইউএমএস) নির্বাহী পরিচালক শামীমা আক্তার। এতে বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফকীর আবদুল জব্বার, জেলা বিএনপির সহসভাপতি আসাদুজ্জামান লাল, জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি কমরেড জ্যোতি শংকর ঝন্টু, জেলা কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সভাপতি কমরেড আবদুল সামাদ মিয়া, জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি খন্দকার হাবিবুর রহমান, সাধারন সম্পাদক মোকছেদুর রহমান, রেডক্রিসেন্ট ইউনিটের সাধারন সম্পাদক আকরাম হোসেন, জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি আবদুল হালিম বাবু প্রমূখ। সভায় বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন, এনজিও, সাংবাদিক, শিক্ষক, শিক্ষার্থীসহ নানা শ্রেণিপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
বক্তারা বলেন, মানুষের বেঁচে থাকার মূল উপকরণ খাদ্য। কিন্তু স্বাধীনতার এতগুলো বছর পরেও আজো দেশে সবার জন্য খাদ্যকে অধিকার হিসেবে নিশ্চিত করা যায় নাই। অপুষ্টির শিকার হচ্ছে অনেকে। একইসাথে আমরা যেসব খাবার গ্রহণ করছি তাও মানসম্মত নয়। নির্বাচন আসলে দেশের প্রধান রাজনৈতিক দল বিভিন্ন ধরনের প্রতিশ্রুতি দেন। নেতারা বিভিন্ন ধরনের অঙ্গিকার করেন। কিন্তু নির্বাচিত হলে তারা বেমালুম সব ভূলে যান। আমরা চাই খাদ্যকে মৌলিক অধিকার হিসেবে সংবিধানে স্বীকৃতি দেওয়া হোক। আর একটি প্রাণও যেনো খাবারের অধিকারে মারা না যায়।
এসময় প্রধান দুই রাজনৈতিক দলের নেতারা সভার দাবি তাদের দলের সভায় উত্থাপন করবেন বলে আশ্বস্ত করেন।
প্রসঙ্গত, রাজবাড়ীতে সংসদীয় আসন রয়েছে দুটি। দুটি আসনেই সাংসদ আওয়ামীলীগের। রাজবাড়ী-১ আসনে (সদর ও গোয়ালন্দ উপজেলা) আওয়ামীলীগ ও বিএনপিসহ তিনজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। অপরদিকে পাংশা, বালিয়াকান্দি ও কালুখালী উপজেলা নিয়ে রাজবাড়ী-২ আসন গঠিত। এই আসনে মোট ছয়জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।