আপনার আশে পাশের বিভিন্ন ঘটনা-দূর্ঘটনা, প্রকৃতি পরিবেশ ও সংস্কৃতি অনুষ্ঠান এর ছবি তুলে পাঠিয়ে দিন- [email protected]

টুঙ্গীপাড়া এক্সপ্রেস ট্রেনটি বালিয়াকান্দি বহরপুর রেলওয়ে ষ্টেশনে নিয়মিত বিরতীর মধ্যে দিয়ে প্রানের দাবী পূর্ণ


মো. আমিরুল হক ঃ  বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা ২৫ মিনিটে জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর রেলওয়ে ষ্টেশনে সম্প্রতি উদ্বোধন হওয়া গোপালগঞ্জ থেকে রাজশাহী টঙ্গীপাড়া এক্সপ্রেস ট্রেনটি বহরপুর রেলওয়ে ষ্টেশনে নিয়মিত বিরতীর মধ্যে দিয়ে বালিয়াকান্দি উপজেলাবাসীর প্রাণের দাবী পূর্ণ হলো। অত্র ট্রেনটি বহরপুর রেলওয়ে ষ্টেশনে নিয়মিত বিরতীর দাবীতে ইতিপূর্বে সোনার বাংলা সমাজ কল্যান ও ক্রীড়া সংসদের আয়োজনে রেলওয়ে ষ্টেশন প্লাসফর্মে শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন, স্মারকলিপি ও গণস্বাক্ষরের মতো কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছিল।
দীর্ঘদিনের জল্পনা কল্পনা অবসান ঘটিয়ে গত কাল বৃহস্পতিবা সকালে বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর রেলওয়ে ষ্টেশনে গোপালগঞ্জ এর গোবরা থেকে ছেড়ে আসা ট্রেনটি দীর্ঘক্ষন এই ষ্টেশনে যাত্রাবিরতীর মধ্যে দিয়ে এই এলাকার জনসাধারনের প্রানের দাবীকে পূরণ করে। ট্রেনটি গোপালগঞ্জ থেকে ছাড়ার খবর পেয়ে বহরপুর রেলওয়ে ষ্টেশনে বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা উৎসুক জনতা আনন্দ উল্লাস করতে থাকে। সেখানে উৎসুক জনতার মধ্যে কথা কলেন সোনা বাংলা সমাজ কল্যান ও ক্রীড়া সংসদের আহ্বায়ক ও ট্রেন বিরতী আন্দলনের রূপকার এস,এম হেলাল খন্দকার, নবাবপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা এম,এ কুদ্দুস, জেলা বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী লীগের সভাপতি লিটন আক্তার পলাশ, অক্সফোর্ড আইডিয়াল এন্ড ক্যাডেট একাডেমির অধ্যক্ষ মো. মঞ্জুরুল হক, বহরপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মো. শাহজাহান মিয়া, বহরপুর বাজার বণিক সমিতি সহ-সভাপতি আলহাজ্ব হারুন-অর- রশিদ, ইসলামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সদস্য মো. ফিরোজ মল্লিক প্রমূখ। 
এসময় এস,এম হেলাল খন্দকার বলেন, আজ আমাদের এত বড় পাওয়ার পেছনে যিঁনি অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন তিনি বালিয়াকান্দি উপজেলার কৃতি সন্তান গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. শেখ মো. রেজাউল ইসলাম। তিনি তাঁর পরিশ্রমের ফল তুলে দিয়েছেন আমাদের ঝুলিতে। আমরা এই ট্রেনটি নিয়মিত বিরতী পেয়ে অতিশয় আনন্দিত।
ট্রেনটি বহরপুর রেলওয়ে ষ্টেশনে পৌছানোর পর উপস্থিত স্থাণীয় জনসাধান, ট্রেনপরিচালকসহ সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী ও ট্রেনে থাকা যাত্রীদের মাঝে মিষ্টি বিতরণ করা হয়। পরে কথা হয় ট্রেন পরিচালক মো. বোরহান মোল্লার সঙ্গে। তিনি বলেন, আজ আপনাদের বহরপুর রেলওয়ে ষ্টেশনে এই আন্তঃনগর ট্রেনটি নিয়মিত বিরতীর অনুমতি পেয়েছে এটা আমাদের নিকটও ভালো লাগছে। আর আজ আপনাদের এই সুন্দর আয়োজন আমাদের সবাইকে মুগ্ধ করেছে। 



No comments: