আপনার আশে পাশের বিভিন্ন ঘটনা-দূর্ঘটনা, প্রকৃতি পরিবেশ ও সংস্কৃতি অনুষ্ঠান এর ছবি তুলে পাঠিয়ে দিন- [email protected]

পতœীতলা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইছাহাক দূর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে নিহত, ড্রাইভার আহত



পরেশ টুডু, পতœীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ পতœীতলায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক নজিপুর পৌরসভার মেয়র ইছাহাক হোসেন দূর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে নিহত হয়েছেন। এসময় তার সাথে থাকা মাইক্রো ড্রাইভার গুরুত্বর আহত। মঙ্গলবার রাত আনুঃ সাড়ে ৯টায় তার নিজ বাড়িতে প্রবেশের সময় এই হামলার ঘটনা ঘটেছে।

নিহত ইছাহাক হোসেন (৭২) নজিপুর পৌরসভার মামুদপুর গ্রামের মৃত খয়ের মুন্সীর ছেলে। আহত ড্রাইভার হলো চক দূর্গাআইয়াম এলাকার নারায়ন রায়ের ছেলে দুলাল রায় (৩২)।

স্থানীয় ও পুলিশ সুত্রে জানাগেছে, সভাপতি ইছাহাক হোসেন প্রতিদিনের ন্যায় রাতে দলীয় কাজ শেষে পার্টি অফিস থেকে মাইক্রো যোগে নজিপুর পৌর এলাকার মাহমুদপুরের নিজ বাড়ির উদ্দ্যেশ্যে বের হন। গাড়ি থেকে নেমে বাসার গেটে প্রবেশ করার সময় আগে থেকে বাসার মধ্যে ওৎ পেতে থাকা ৪/৫জনের মুখোশধারী একটি দল সংঘবদ্ধভাবে তার উপর ঝাপিয়ে পড়ে এবং উপুর্যপুরী ছুরিকাঘাত করে। এসময় তার চিৎকার শুনতে পেয়ে মাইক্রো ড্রাইভার ছুটে আসলে তার উপরও হামলা চালিয়ে তাকেও আহত করে। 

ড্রাইভার দুলালের চিৎকার ও চেচামেচিতে স্থানীয়রা ছুটে আসলে মুখোশধারী দুর্বৃত্তরা দ্রুত পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা দ্রুত তাদের উদ্ধার করে পতœীতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক ইছাহাক হোসেনকে মৃত ঘোষণা করেন।

এবিষয়ে পতœীতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিক্যাল অফিসার দেবাসিস রায় জানান, গ্রামবাসীরা ইছাহাক হোসেন ও তার ড্রাইভার দুলাল রায়কে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসার পথিমধ্যেই ইছাহাক হোসেন মারা যায়। আর ড্রাইভার দুলাল বর্তমানে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। নিহত ইছাহাক হোসেনের মাথায়, বুকে ও গায়েসহ বেশ কিছু স্থানে ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

এঘটনায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন নওগাঁ পুলিশ সুপার রশিদুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরীফুল ইসলাম, পতœীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ পরিমল কুমার চক্রবর্তী, ডিবি পুলিশ, সাবেক আওয়ামীলীগের সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামীলীগেদর যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব শহীদুজ্জামান সরকার, মহাদেবপুর উপজেলা আওয়ামীলগের সভাপতি ছলিম উদ্দীন তরফদার, সহ প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

এব্যাপারে পতœীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ পরিমল কুমার চক্রবর্তী জানান, হত্যার ঘটনার সঠিক কোন কারণ জানা সম্ভব হয়নি। দুর্বৃত্তদের গ্রেপ্তারের জন্যে অভিযান চলছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

No comments: