আপনার আশে পাশের বিভিন্ন ঘটনা-দূর্ঘটনা, প্রকৃতি পরিবেশ ও সংস্কৃতি অনুষ্ঠান এর ছবি তুলে পাঠিয়ে দিন- [email protected]

গোয়ালন্দে সরিষা ফুলের মধু আহরণে ব্যাস্ত মৌয়ালরা



গোয়ালন্দ(রাজবাড়ী) প্রতিনিধি
পদ্মা পাড়ের রাজবাড়ীর গোায়ালন্দ উপজেলার প্রত্যন্ত কৃষি জমি এখন সরিষা ফুলের হলুদ রঙে সেজে অপরূপ দৃশ্যের সৃষ্টি হয়েছে। হলুদে ঢাকা মাঠে মৌমাছি ও প্রজাপতির অবিরাম খেলা। এরই মাঝে মধু সংগ্রহে ব্যাস্ত মৌয়ালরা।
সরিষা ফুলের মধু সংগ্রহে এসব জমির পাশে পোষা মৌমাছির শত শত বাক্স নিয়ে হাজির হয়েছেন এসব মৌয়াল। ওই সব বাক্স থেকে হাজার হাজার মৌমাছি বের হয়ে মধু সংগ্রহে ঘুরে বেড়াচ্ছে সরিষা ফুলের মাঠে।
সরজেমনি দেখা গেছে, উপজলো দৌলতদিয়া, ছোটভাকলা, দেবগ্রাম ও উজানচর ইউনিয়নের বিভিন্ন সরিষা ক্ষেতের পাশে মৌয়ালরা মধু আহরণে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছেন। তাদের বাক্স থেকে দলে দলে পোষা মৌমাছি উড়ে গিয়ে ফুলে ফুলে ঘুরে সংগ্রহ করছে মধু। মধু সংগ্রহ করে মৌমাছিরা ফিরছে বাক্সে রাখা মৌচাকে। সেখানে সংগৃহীত মধু জমা করে আবার ফিরে যাচ্ছে সরিষা ক্ষেতে। এভাবে দিনব্যাপী মৌমাছিরা যেমন মধু সংগ্রহ করছে, তেমনি ফুলে ফুলে ঘুরে সরিষা পরাগায়নেও সহায়তা করছে।
রাজবাড়ী সদর উপজেলার গোয়ালন্দ মোড়ের বাসিন্দা মো. মুক্তার হোসেন বলেন, তিনি গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ এলাকায় ৯০টি এবং পদ্মার ওপার পাটুরিয়া ঘাট এলাকায় ৫০টি বাক্স স্থাপন করেছেন। দুই সপ্তাহ পর বুধবার মধু আহরণ করেছি। সব মিলিয়ে প্রায় ৪ মণ মধু পেয়েছি। এখন থেকে এক সপ্তাহ পর পর এ পরিমাণে সংগ্রহ করতে পারবো বলে আশা করছি। প্রতিমণ মধু ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় ১২-১৩ হাজার টাকা দরে বিক্রি হয়। ৬ মাস এভাবে ভালোই রোজগার হয়। তবে বাকী ৬ মাস রাণী মৌমাছিগুলোকে যতœ ও খাওয়া বাবদ ৩-৪ লাখ টাকা ব্যায় হয় বলে তিনি জানান। যে সকল এলাকায় কৃষকরা সরিষা ক্ষেতে সেচ দেন সে সব এলাকায় সরিষার ফলন ভাল হওয়ার পাশাপাশি মধু আহরণও বেশী হয় বলে তিনি জানান।
গোয়ালন্দ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শিকদার মো. মোহায়মেন আক্তার জানান, এ বছর উপজেলায় ৬৫৫ হেক্টর জমিতে স্থানীয় এবং ২৮২ হেক্টর জমিতে সরিষার আবাদ করা হয়েছে। ইতিমধ্যে সরিষায় ফুল ফুটতে শুরু করেছে। ফুল থেকে মধু আহরণের জন্য মৌয়ালীরা তাদের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। আমরা মৌয়ালীদের প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিয়ে সহযোগীতা করছি। আশা করছি ভাল পরিমাণে মধু আহরণ হবে এখানে। এর সাথে সরকারিভাবে আমরাও পরীক্ষামূলকভাবে মধু আহরণ কর্মসূচী গ্রহণ করেছি।

No comments: