Sunday, January 27, 2019

পাংশা উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হতে চান সফুরা খাতুন


মাসুদ রেজা শিশির ॥ রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার সর্বত্রই চলছে নির্বাচনের হাওয়া আগামী মার্চে অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পাংশা উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী পাংশা পৌর মহিলা আওয়ামীলীগের সভানেত্রী ও  মাছপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সফুরা খাতুন। তিনি মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা আসাদুজ্জামান খান চুন্নুর স্ত্রী। বাংলাদেশের সর্ব উচ্চ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অধ্যায়ন শেষে শিক্ষকতার মত মহান পেশায় আত্বনিয়োগ করেন এই ব্যাক্তি । দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে শিক্ষকতার পাশাপাশি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের রাজনিতির সাথে জড়িয়ে রয়েছেন তিনি। সফুরার পরিবারটি আওয়ামীলীগের পরিবার তার ছোট ভাই জেলার কালুখালী উপজেলার কালিকাপুর ইউপি আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান হিসাবে সেবা প্রদান করে আসছেন। সফুরা খাতুন বিগত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিম এমপি’র পক্ষে মাঠে প্রান্তে এলাকার মহিলাদের নিয়ে ব্যাপক ভাবে নির্বাচনী প্রচারনায় মাঠে ছিলেন। সফুরা খাতুন ১৯৮৮ সালে চাকুরীতে যোগদান করে অদ্যবদি সুনামের সাথে শিক্ষকতা করে চলছেন। রাজনিতির পাশাপাশি সফুরা খাতুন বিভিন্ন সামাজিক কাজের সাথে জড়িত বাংলাদেশ স্কাউট্স পাংশা উপজেলার নির্বাহী কমিটির সহ-সভাপতি,পাংশা-কালুখালী উপজেলা শিক্ষা কল্যান ট্রাস্টের নির্বাচিত সদস্য,ইতি পূর্বে শিক্ষা ও চাকুরীর ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জন কারী নারী  হিসাবে পেয়েছেন জয়িতা পুরুস্কার। আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নারীদের প্রতিনিধি হিসাবে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয় প্রত্যাশী সফুরা খাতুন বলেন দির্ঘদিন ধরে দলের সাথে আছি দলের কাছে মনোনয়ন চাইব দল মনোনয় দিলে আশাকরি বিপুল ভোটে বিজয় লাভ করতে পারব।  আমি রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিমের আর্দশে রাজনিতি করি দলের বাইরে যাওয়ার কোন সুযোগ নেই আমি নির্বাচিত হলে আমার মহিলাদের নিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ভিসন ২১২১ বাস্তবায়নে আমাদের নেতা জিল্লুল হাকিম এমপির হাতকে শক্তিশালী করতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করব। সফুরা খাতুন পাংশা উপজেলার সর্বস্তরের মানুষের নিকট দোয়া ও আর্শ্বীবাদ কামনা করেন।