Tuesday, January 22, 2019

বালিয়াকান্দিতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন দলীয় মনোনয়ন পেতে তৎপর


বালিয়াকান্দি (রাজ
বাড়ী) সংবাদদাতা ঃ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন শেষ হতে না হতেই নির্বাচন কমিশনের মার্চে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ঘোষনায় রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে বইতে শুরু করেছে আগাম হাওয়া। এবারই প্রথম দলীয় প্রতিকে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কারণে সম্ভাব্য প্রার্থীরা মনোনয়ন পাওয়ার লক্ষে আগাম প্রচার-প্রচারনা শুরু করেছেন। নির্বাচনের আগাম হাওয়া লেগেছে এলাকায়। বিএনপির কোন ঘোষনা না আসলেও বসে নেই সম্ভাব্য প্রার্থীরা।
স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানাগেছে, ৪বারের ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও পর পর ২বার উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবুল কালাম আজাদ এলাকার উন্নয়নে অগ্রণী ভুমিকা পালন করছেন। এ ছাড়াও এবারের নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন চাচ্ছেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও ঠিকাদার এহসানুল হাকিম সাধন, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি অধ্যাপক ফকরুজ্জামান মুকুট, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ও জামালপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান একেএম ফরিদ হোসেন বাবু, বহরপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান খান, সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য এ,এ,এম আব্দুল মতিন ফেরদৌস, উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্ঠান ঐক্য পরিষদের সভাপতি রাম গোপাল চট্রোপাধ্যায়, জঙ্গল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নৃপেন্দ্রনাথ বিশ্বাসের পুত্র ও বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোটের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক লন্ডন প্রবাসী লিটন কুমার বিশ্বাস উৎপল। অন্যদিকে বিএনপি অথবা সতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে, ইসলামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি মোঃ আবুল হোসেন খান, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম শওকত সিরাজ, বালিয়াকান্দি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক খোন্দকার মশিউল আযম চুন্নু। এদের মধ্যে মোঃ আবুল কালাম আজাদ, গোলাম শওকত সিরাজ, মোঃ আবুল হোসেন খান, খলিলুর রহমান খান বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহন করেন।
বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কালাম আজাদ মাঠেই রয়েছে। উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক এহসানুল হাকিম সাধন ইতিমধ্যেই প্রচারনা শুরু করেছেন। তিনি বিভিন্ন ইউনিয়নে গিয়ে নিজেকে প্রার্থী হিসেবে ঘোষনা দিয়ে জনসমর্থন আদায়ে কাজ করছেন। ইসলামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আবুল হোসেন খানও দীর্ঘদিন ধরে উপজেলার বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে যোগদান করে আসছেন।
সম্ভাব্য প্রার্থীরা যে যার মতো নিজের অবস্থান তৈরী ও দলীয় মনোনয়ন পেতে লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন। তবে শেষ পর্যন্ত কেউ দলের সিদ্ধান্তের বাইরে যাবে না বলেই সাধারন ভোটাররা মনে করেন।